জরুরি নোটিশ:
যুগযুগান্তর পত্রিকার জন্য সারাদেশে জেলা ও উপজেলায় সংবাদ দাতা আবশ্যক।  মোবা: 01842268378 ইমেইল: nskibria2012@gmail.com
উ. কোরিয়া ফের জোড়া ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করল

উ. কোরিয়া ফের জোড়া ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

জাপান সাগরের আবারও দুটি স্বল্প-পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়েছে উত্তর কোরিয়া। নিয়মিত বিরতিতে গত কয়েক সপ্তাহ যাবত পূর্ব উপকূল থেকে দুটি করে মিসাইল উৎক্ষেপণ করে যাচ্ছে পিয়ংইয়ং। এমনটাই দাবি করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী। শনিবার সফলভাবে উৎক্ষেপণ করা এই ক্ষেপণাস্ত্র দুটি এর আগে মিসাইলগুলোর মতোই বলে জানিয়েছেন এক মার্কিন কর্মকর্তা। এবার যা নিয়ে গত কয়েক সপ্তাহে টানা সপ্তমবারের মতো জোড়া ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা ‘রয়টার্সে’র প্রতিবেদনে জানানো হয়, গত জুনে দুই কোরিয়ার সীমান্তে প্রথম কোনো মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উন মধ্যকার এই ঐতিহাসিক সাক্ষাতের পর থেকে নিয়মিত বিরতিতে এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে পিয়ংইয়ং। এমন পরিস্থিতিতে দেশটির পারমাণবিক অস্ত্র ও ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কার্যক্রমের ভবিষ্যৎ নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ও উত্তর কোরিয়া মধ্যকার আলোচনা পুনরায় শুরুর প্রক্রিয়া ক্রমে জটিল হয়ে পড়ছে বলে দাবি সিউলের। গত জুনের সাক্ষাতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও কিম পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের বিষয়ে কার্যকরী সমঝোতায় পৌঁছানোর বিষয়ে ঐকমত পোষণ করলেও এরপর আর দুদেশের মধ্যে কোনো ফলপ্রসূ আলোচনা হয়নি। কেননা বিভিন্ন সময়ে যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসন এই আলোচনা চালিয়ে যাওয়ার উদ্যোগ নিলেও তা অব্যাহত রাখতে ব্যর্থ হয়েছে। এ দিকে সমঝোতার পথ খুঁজে পেতে চলতি সপ্তাহে সিউল সফর করেছিলেন মার্কিন উত্তর কোরিয়া বিষয়ক রাষ্ট্রদূত স্টিফেন বাইগুন। গত বুধবার (২১ আগস্ট) তিনি বলেছিলেন, ‘এবার কেবল উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে প্রকৃত সাড়া পেলেই আমরা মাঠে নেমে পড়ব।’

যদিও সম্প্রতি ওয়াশিংটন ও সিউল মধ্যেকার অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে একটি যৌথ সামরিক মহড়া এবং শত্রুদের রাডার ফাঁকি দিতে সক্ষম এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান দক্ষিণ কোরিয়ার আমদানি করা; তাছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের মাঝারি পাল্লার ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালানোকে নিজেদের কাছে এক বড় রকমের হুমকি বলে মনে করছে উত্তর কোরিয়া। যা আগামীতে আলোচনার পথে বাধা হয়ে দাঁড়াবে বলে দাবি করে দেশ দুটির তীব্র সমালোচনা করছে পিয়ংইয়ং।
ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ কার্যক্রম প্রত্যক্ষ করছেন প্রেসিডেন্ট কিম জং উন। ট্রাম্প প্রশাসনের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, ‘উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের সম্পূর্ণ বিষয়টি আমরা জানি। পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। পাশাপাশি আমাদের মিত্র জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে এ নিয়ে কথা চলছে।’ যদিও পিয়ংইয়ংয়ের এই ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণকে জাতিসংঘ সনদের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন বলে এরই মধ্যে দাবি করেছেন জাপানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী তাকেশি আইওয়া। তিনি বলেন, ‘বিষয়টি কোনোভাবেই উপেক্ষা করার মতো নয়। কেননা এর সঙ্গে আমরাও জড়িত।’

অপর দিকে এই ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের বিষয়টি নিশ্চিত করে দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফস অব স্টাফ (জেএসসি) বলেছেন, ‘শনিবার স্থানীয় সময় সকাল পৌনে ৬টা ও সকাল ৭টা ২ মিনিটে উত্তর কোরিয়ার হ্যামগিয়ং রাজ্যের দক্ষিণাঞ্চলের সন্দক এলাকা থেকে ক্ষেপণাস্ত্র দুটি উৎক্ষেপণ করা হয়। যা ক্ষেপণাস্ত্র দুটি ভূমি থেকে প্রায় ৬০ মাইল উচ্চতায় ২৩৬ মাইল উড়ে গিয়ে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানে।’ নতুন করে উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের খবর দিতে গিয়ে দক্ষিণের সামরিক বাহিনী জানায়, গত কয়েক সপ্তাহের কম সময়ের মধ্যে টানা সপ্তমবারের মতো ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালাল উত্তর কোরিয়া। সর্বশেষ গত বুধবার (২১ আগস্ট) এবং মঙ্গলবার (৬ আগস্ট) দেশটির পূর্ব উপকূলের দিকে দুটি অজ্ঞাত ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছিল পিয়ংইয়ং।তাছাড়া গত ২ আগস্ট (শুক্রবার) দেশটি তাদের পূর্ব সাগরকে লক্ষ্য করে দুটি স্বল্প পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছিল। যা প্রায় ২২০ কিলোমিটার দূরে গিয়ে সমুদ্রে পড়লেও এগুলোর উচ্চতা ছিল তুলনামূলক কম। যদিও মিসাইলগুলোর গতিও ছিল স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশি বলে দাবি বাহিনীটির।

যুগযুগান্তর পত্রিকা. নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Jugjugantor24.com  
Design & Developed BY ThemesBazar.Com