জরুরি নোটিশ:
যুগযুগান্তর পত্রিকার জন্য সারাদেশে জেলা ও উপজেলায় সংবাদ দাতা আবশ্যক।  মোবা: 01842268378 ইমেইল: nskibria2012@gmail.com
ওয়ালটনে অগ্নিনির্বাপণ মহড়া

ওয়ালটনে অগ্নিনির্বাপণ মহড়া

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক :
ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক এমদাদুল হক সরকার, নজরুল ইসলাম সরকার, ইভা রেজওয়ানা নিলু, এস এম জাহিদ হাসান, উপদেষ্টা অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যানট জেনারেল চৌধুরী হাসান সোহরাওয়ার্দী প্রমুখ মহড়ায় অংশ নেন
Walton E-plaza
এম মাহফুজুর রহমান : রাজধানীতে ওয়ালটনের করপোরেট অফিসে অগ্নিকাণ্ডে উদ্ধার ও প্রাথমিক চিকিৎসা বিষয়ে সচেতনতামূলক আলোচনা সভা ও মহড়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (২৪ আগস্ট) দুপুরে অফিসের ১ হাজারেরও বেশি কর্মকর্তা-কর্মচারীর অংশগ্রহণে এ মহড়া হয়।

প্রতিষ্ঠানটির মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত এ মহড়ায় বারিধারা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের প্রায় ২০ জন প্রশিক্ষিত সদস্য অংশ নেন।

কর্মসূচির অংশ হিসেবে প্রথমে রান্না ঘরের গ্যাস সিলিন্ডার ও অফিসের অন্যান্য স্থানে আগুন লাগলে কীভাবে তা দ্রুত নেভানো যায়, অগ্নিকাণ্ডের পরপরই কীভাবে নিরাপদে থাকা যাবে এবং পরবর্তীতে কীভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা নিতে হবে সে বিষয়ে আলোচনা করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির নির্বাহী পরিচালক এমদাদুল হক সরকার, নজরুল ইসলাম সরকার, ইভা রেজওয়ানা নিলু, এস এম জাহিদ হাসান, উপদেষ্টা অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট জেনারেল চৌধুরী হাসান সোহরাওয়ার্দী ও বারিধারা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

ওয়ালটনের অগ্নিনির্বাপণ মহড়ার একটি দৃশ্য

আলোচনা অনুষ্ঠানের পর সোয়া ১২টার দিকে অগ্নিনির্বাপণ মহড়া শুরু হয়ে চলে বেলা ১টা পর্যন্ত। এ সময় দেখানো হয়, আগুন লাগলে কীভাবে তা নেভাতে হবে। এছাড়া, যেকোনো দুর্ঘটনায় ফায়ার সার্ভিসকে জানানোর বিষয়টিও মহড়ায় দেখানো হয়।

এস এম জাহিদ হাসান বলেন, ‘অধিকাংশ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দেখা যায়, সংশ্লিষ্টদের অসচেতনতার জন্যই ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ বৃদ্ধি পায়। আমরা যদি নিজ নিজ জায়গা থেকে সবাই সচেতন হই, তাহলেই কেবল অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ক্ষতির পরিমাণ কমিয়ে আনা সম্ভব। দুর্ঘটনা কখন আসবে কেউ জানে না। কিন্তু সতর্ক থাকা উচিৎ সব সময়ই। সতর্কতা ও সচেতনতার অংশ হিসেবেই আমরা এ কর্মসূচি গ্রহণ করি।’

‘আমরা প্রায়ই কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নিয়ে নানা বিষয়ে সচেতনতামূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে থাকি। কারণ, আমরা বিশ্বাস করি, সবকিছুর পূর্বে মানুষের জানমালের নিরাপত্তা দরকার। ঢাকা শহরে অগ্নিকাণ্ডের অনেক বড় বড় দুর্ঘটনা দেখেছি। এসব দুর্ঘটনার পুনরাবৃত্তি আর চাই না। এর আগেও আমরা সচেতনতার অংশ হিসেবেই ডেঙ্গু প্রতিরোধে কর্মসূচি পালন করেছি। সেখানেও সবাই স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেছিল। আমাদের এসব সচেতনতামূলক কর্মসূচি ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে। মহড়ায় অংশ নেয়া ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের সদস্যদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি,’ বলেন প্রতিষ্ঠানটির পলিসি, এইচআরএম অ্যান্ড অ্যাডমিন বিভাগের নির্বাহী পরিচালক।

উল্লেখ্য, চলতি মাসের প্রথম দিকে ‘রাখিব চারপাশ পরিষ্কার, করিব ডেঙ্গু প্রতিকার’ স্লোগানকে সামনে রেখে ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনতামূলক কর্মসূচি পালন করেছে দেশীয় বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন।

যুগযুগান্তর পত্রিকা. নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Jugjugantor24.com  
Design & Developed BY ThemesBazar.Com