জরুরি নোটিশ:
যুগযুগান্তর পত্রিকার জন্য সারাদেশে জেলা ও উপজেলায় সংবাদ দাতা আবশ্যক।  মোবা: 01842268378 ইমেইল: nskibria2012@gmail.com
বিক্ষোভ নাঈম হত্যায় চেয়ারম্যানের ফাঁসির দাবিতে

বিক্ষোভ নাঈম হত্যায় চেয়ারম্যানের ফাঁসির দাবিতে

খুলনা প্রতিনিধি:

খুলনার তেরখাদা উপজেলার ছাগলাদাহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম দ্বীন ইসলামের ফাঁসির দাবিতে আবারও বিক্ষোভ, সড়ক অবরোধ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ রবিবার বেলা ১১টায় খুলনা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে নিহত নাঈমের বৃদ্ধা মা ও তার ভাইসহ তেরখাদা উপজেলার কয়েকহাজার মানুষ তার ফাঁসির দাবিতে মানববন্ধন করে।

মানববন্ধন শেষে একটি বিক্ষোভ মিছিল নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে মিছিলটি জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনের সড়কে প্রায় দেড় ঘণ্টা অবরোধ করে রাখে। এ সময় প্রশাসনের পক্ষ থেকে সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচারের আশ্বাস প্রদানের পরে তারা অবরোধ প্রত্যাহার করে।

বিক্ষোভ, সড়ক অবরোধ ও মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, এলাকায় নিজের আধিপত্য বিস্তার ও রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় চেয়ারম্যান এস এম দ্বীন ইসলাম নাঈমকে হত্যার পরিকল্পনা তৈরি করেছিল। এলাকায় তার পালিত সন্ত্রাস বাহিনী থাকায় কেউ তার অপকর্মের বিরুদ্ধে কথা বলতে পারে না। তার অপকর্মের বিরুদ্ধে কথা বলতে গেলে সবাইকে মারধরের শিকার হতে হয়।

বছরের পর বছর তিনি এলাকার মানুষদের জিম্মি করে রেখেছেন। তার বিরোধিতা করলে হামলা মামলার শিকার হতে হয়। এমনকি বাড়ি ঘর ছাড়া করেছেন তিনি অসংখ্য পরিবারকে। নাঈমের পরিবার তার অপকর্মের বিরোধিতা করায় তাকে পরিকল্পিতভাবে তিনি হত্যা করেছেন তিনি।

মানববন্ধনে বক্তারা আরও বলেন, সব সময় ক্ষমতাসীন দলের সাথে থাকে চেয়ারম্যান দ্বীন ইসলাম। এর আগে জাতীয় পার্টি ও বিএনপির সক্রিয় নেতা ছিল সে। সে ছাগলাদাহ ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতিও উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি এ ছিল। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পরে চেয়ারম্যান এস এম দ্বীন ইসলাম আওয়ামী লীগে যোগ দেয়।

তার পর থেকে সে এলাকায় অধিপত্য বিস্তার করতে সন্ত্রাসীদের পৃষ্ঠপোষকতা শুরু করে। টেন্ডারবাজি, চাঁদাবাজি, জমিদখল তার আয়ের মূল উৎস। তার কারণে দিনের বেলায়ও এলাকায় সাধারণ মানুষ ভীত সন্ত্রস্ত থাকে।মানববন্ধনে বক্তারা এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত চেয়ারম্যান এস এম দ্বীন ইসলামসহ সকল অপরাধীর ফাঁসির দাবি করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- মামলার বাদী মাফুজা বেগম, নিহত নাঈম শেখের ছোট ভাই জসীম, ভগ্নীপতি হাসু, বোন ঝুমুর, চাচা চাদ, খুলনা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সদস্য কাজী তরিকুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক চেয়ারম্যান শেখ নাসির উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা অব. কাস্টমস কর্মকর্তা শেখ মনিরুজ্জামান মনি, ছাগলাদাহ ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী সুমন কাচা, আওয়ামী লীগ নেতা ও সাবেক মেম্বার জামশেদ সরদার, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক দুলুসহ তেরখাদা উপজেলার সাধারণ মানুষেরা।

উল্লেখ্য, গত ৭ আগস্ট রাত সাড়ে ৩টার দিকে খুলনার তেরখাদা উপজেলার ছাগলাদাহ ইউনিয়নের পহরডাঙ্গা গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে নাঈম শেখ নামের এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এ সময় গুরুতর আহত হন নাঈমের বাবা হিরু শেখ (৫৫)।

এ ঘটনায় পরদিন ৮ আগস্ট নিহতের মা মাফুজা বেগম বাদী হয়ে ১৭ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ১০ থেকে ১২ জনের বিরুদ্ধে তেরখাদা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) নাঈম হত্যায় মূল পরিকল্পনাকারী ও অর্থ জোগানের অভিযোগে ছাগলাদাহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম দ্বীন ইসলামকে গ্রেফতার করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

যুগযুগান্তর পত্রিকা. নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Jugjugantor24.com  
Design & Developed BY ThemesBazar.Com