শিরোনাম :
বাংলাদেশে নবনিযুক্ত দেশে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে : প্রধানমন্ত্রী সরকার জরুরি ভিত্তিতে সাড়ে ৫ লাখ টন চাল আমদানির সিদ্ধান্ত বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন বিএডিসির নতুন চেয়ারম্যান ড. অমিতাভ সরকারের যোগদান দেশের প্রায় ১৭ লক্ষ গৃহকর্মী সুরক্ষা ও কল্যাণ নীতি ২০১৫ বাস্তবায়ন জরুরি’ সেবামূলক কাজে সংসদ সদস্যদের সম্পৃক্ততা বাড়ানোর আহ্বান জাতির পিতার সমাধিসৌধে শ্রদ্ধা জানালেন নবনিযুক্ত সচিব সায়েদুল ইসলাম জাতীয় প্রেস ক্লাবে মুশতাকের মৃত্যুর কারণে আইন বাতিল করতে হবে কেন? : তথ্যমন্ত্রী চাটখিলে ২রা মার্চ স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলন দিবস পালিত সাতছড়ির জাতীয় উদ্যানে বিজিবির অভিযান, ১৬ রকেট শেল উদ্ধার
জরুরি নোটিশ:
যুগযুগান্তর পত্রিকার জন্য সারাদেশে জেলা ও উপজেলায় সংবাদ দাতা আবশ্যক।  মোবা: 01842268378 ইমেইল: nskibria2012@gmail.com
‘দুর্নীতি’ নিয়ে সরব উপপ্রধান

‘দুর্নীতি’ নিয়ে সরব উপপ্রধান

যুগ-যুগান্তর ডেস্ক:

পঞ্চায়েতের বিভিন্ন প্রকল্পের টেন্ডার প্রক্রিয়ায় দুর্নীতির অভিযোগে সরব হলেন উপপ্রধান। প্রশাসনিক সূত্রে খবর, পছন্দের ঠিকাদারকে কাজ পাইয়ে দিতে পঞ্চায়েতে অশান্তির আশঙ্কা প্রকাশ করে বিডিও-র কাছে নিরাপত্তার দাবিও জানিয়েছেন তিনি। তৃণমূল পরিচালিত সাঁইথিয়ার মাঠপলশা পঞ্চায়েতে। পঞ্চায়েত প্রধান অবশ্য এ সব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন। বিডিও বিষয়টি দেখার আশ্বাস দিয়েছেন।

প্রশাসনিক ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ১২ সেপ্টেম্বর ওই পঞ্চায়েতে চতুর্দশ অর্থ কমিশন তহবিলের প্রায় ৪২ লক্ষ টাকা খরচে কয়েকটি রাস্তা, নিকাশি নালা তৈরি করা-সহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজের প্রস্তাব গৃহীত হয়। সেই কাজের জন্য ইচ্ছুক ঠিকাদারদের পঞ্চায়েত থেকে টেন্ডার ফর্ম সংগ্রহ করার জন্য বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়। ২৭ সেপ্টেম্বর ফর্ম কিনে ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে জমা দেওয়ার দিন নির্ধারিত হয়। ওই দিনই পঞ্চায়েতের অর্থ উপ-সমিতির উপস্থিতিতে খাম খুলে সর্বোচ্চ ছাড় দাতা (কে কত শতংশ কম টাকায় কাজ করতে পারেন) ঠিকাদারকে কাজের বরাত দেওয়ার কথা।

পঞ্চায়েত সূত্রে খবর, অর্থ উপ-সমিতিতে রয়েছেন প্রধান, উপপ্রধান, ৪টি উপসমিতির সঞ্চালক তথা ৪ জন পঞ্চায়েত সদস্য, পঞ্চায়েতের এগজিকিউটিভ অ্যাসিস্ট্যান্ট, নির্মাণ সহায়ক, সচিব। ওই উপ-সমিতির অন্যতম সদস্য তথা পঞ্চায়েতের উপপ্রধান মহম্মদ ইউনুস জানান, টেন্ডার প্রক্রিয়ায় শামিল হওয়ার জন্য পঞ্চায়েতের নোটিস বোর্ড, ব্লক অফিস, এসডিও অফিস, ডাকঘর ও বিভিন্ন জনবহুল এলাকায় বিজ্ঞপ্তি টাঙানোর পাশাপাশি স্থানীয় দু’টি সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন দেওয়ার কথা ছিল।

তাঁর অভিযোগ, কিন্তু কোথাও ওই বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়নি। স্বজনপোষনের স্বার্থে কাউকে কিছু না জানিয়ে কাজ বণ্টনের চেষ্টা চলছে। তাঁর আশঙ্কা, পছন্দের ঠিকাদার ছাড়া অন্যরা যাতে টেন্ডার প্রক্রিয়ায় অংশ নিতে না পারেন, সে জন্য টেন্ডার ফর্ম তোলা এবং জমা দেওয়ার দিন দুষ্কৃতীদের দিয়ে ঝামেলা পাকানোর চেষ্টা করা হতে পারে। তাঁর কথায়, ‘‘এর আগেও এমন ঘটনা ঘটেছে। তাই বিডিও-র কাছে ওই দু’দিন নিরাপত্তার ব্যবস্থা করার দাবি জানিয়েছি।’’

পঞ্চায়েত প্রধান অভিজিৎ সাহা অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ‘‘সংবাদপত্রে বিজ্ঞাপন দিতে হয় বলে আমার জানা নেই। এলাকার অধিকাংশ জনবহুল জায়গায় এ সংক্রান্ত নোটিস দেওয়া হয়েছে। স্বজনপোষন বা অশান্তির অভিযোগও ভিত্তিহীন। ব্যক্তিগত আক্রোশে কেউ মিথ্যা অভিযোগ করলে কী বলা যেতে পারে?’’ সাঁইথিয়ার বিডিও স্বাতী দত্তমুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘অভিযোগ পেয়েছি। সংবাদমাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিতে হয় কিনা বলতে পারব না। অন্য জায়গায় নোটিস দেওয়া হয়েছিল বলে পঞ্চায়েত থেকে জানানো হয়েছে। তবে অশান্তির আশঙ্কার বিষয়টি পুলিশকে জানিয়েছি।’’

যুগযুগান্তর পত্রিকা. নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Jugjugantor24.com  
Design & Developed BY ThemesBazar.Com