জরুরি নোটিশ:
যুগযুগান্তর পত্রিকার জন্য সারাদেশে জেলা ও উপজেলায় সংবাদ দাতা আবশ্যক।  মোবা: 01842268378 ইমেইল: nskibria2012@gmail.com
ওয়ালটনের ব্যানারে নতুন গিনেস রেকর্ড গড়লেন মাসুদ রানা

ওয়ালটনের ব্যানারে নতুন গিনেস রেকর্ড গড়লেন মাসুদ রানা

ক্রীড়া প্রতিবেদক : ফুটবল যাদুকর মাসুদ রানা ওয়ালটনের ব্যানারে নতুন গিনেস রেকর্ড গড়েছেন। বল মাথায় নিয়ে সাঁতরিয়ে দ্রুততম সময়ে (৪৪.৯৫ সেকেন্ডে) ৫০ মিটার অতিক্রম করে মাসুদ রানা এই রেকর্ড গড়েন (Fastest time to swim 50 metres whilst balancing a football (soccer ball) on the head)। আজ শুক্রবার বিকেলে গিনেস বুক কর্তৃপক্ষ তার রেকর্ডের স্বীকৃতি দিয়েছে। স্বীকৃতির প্রমাণ স্বরূপ তাকে একটি স্যাম্পল সার্টিফিটেকও প্রদান করেছে। নিশ্চিত করেছেন ই-মেইল বার্তার মাধ্যমেও।
গেল ২ আগস্ট মিরপুরের সৈয়দ নজরুল ইসলাম সুইমিং কমপ্লেক্সে বল মাথায় নিয়ে সাঁতরিয়ে দ্রুততম সময়ে ৫০ মিটার অতিক্রম করেন মাসুদ রানা। গিনেস বুক কর্তৃপক্ষ ৫০ মিটার অতিক্রম করে এই রেকর্ড গড়তে মাসুদ রানাকে ৯০ সেকেন্ড সময় বেঁধে দিয়েছিল। সেটা মাসুদ রানা মাত্র ৪৪.৯৫ সেকেন্ডে অতিক্রম করেন।
এরপর ৯ আগস্ট তার এই সাঁতারের ভিডিও, মিডিয়া আর্টিকেল, টেলিভিশনের ভিডিও ফুটেজ, ছবি ও অন্যান্য ডকুমেন্ট গিনেস বুক কর্তৃপক্ষের কাছে জমা দেওয়া হয়। সেগুলো যাচাই-বাছাই করে আজ শুক্রবার (৯ নভেম্বর, ২০১৮) মাসুদ রানাকে নতুন রেকর্ডের স্বীকৃতি দিয়েছে গিনেস বুক কর্তৃপক্ষ। শিগগিরই ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে মাসুদ রানাকে সংবর্ধনা দেওয়া হবে।
রেকর্ড গড়ার খবর পেয়ে খুশিতে আত্মহারা মাসুদ রানা বলেন, ‘আমি খুবই খুশি। কী পরিমাণ যে খুশি ভাষায় প্রকাশ করতে পারব না। অবশেষে রেকর্ড গড়তে পারলাম। অনেকদিন ধরে এই দিনটির অপেক্ষায় ছিলাম। এই রেকর্ডটি গড়ার মাধ্যমে বাংলাদেশের নাম গিনেস বুকে উঠাতে পারলাম। আরো রেকর্ড গড়ার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করতে চাই। ওয়ালটন গ্রুপকে ধন্যবাদ দিতে চাই। তারা আমাকে নানাভাবে সহায়তা করায় আমার স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। আশা করব ভবিষ্যতেও আমি ওয়ালটন গ্রুপকে পাশে পাব। আমি তাদের কাছে কৃতজ্ঞ।’
এ বিষয়ে ওয়ালটন গ্রুপের সিনিয়র অপারেটিভ ডিরেক্টর (গেমস অ্যান্ড স্পোর্টস) এফএম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন) বলেন, ‘খুবই খুশির খবর। অপেক্ষায় ছিলাম অনেক দিন। যদিও ১ নভেম্বরের মধ্যে রেকর্ডের স্বীকৃতি দেওয়ার কথা ছিল। এক সপ্তাহ পরে দিয়েছে। আসলে মাসুদ রানা গিনেস বুকের বেধে দেওয়া সময়ের অনেক আগেই বল মাথায় নিয়ে সাঁতার সম্পন্ন করেছিল। আমাদের দৃঢ় বিশ^াস ছিল গিনেস বুক কর্তৃপক্ষ তার এই রেকর্ডের স্বীকৃতি দিবে। কারণ, আমরা যথাযথ প্রক্রিয়া মেনেই সবকিছু করেছিলাম। শিগগিরই আমরা মাসুদ রানাকে সংবর্ধনা দেওয়ার মধ্য দিয়ে প্রতিশ্রুত ১ লক্ষ টাকা দিয়ে উৎসাহিত করব। এই রেকর্ড গড়ার প্রচেষ্টার সঙ্গে যারা সংশ্লিষ্ট ছিলেন তাদের সকলকে আরো একবার ধন্যবাদ দিতে চাই। বিশেষ করে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ, সৈয়দ নজরুল ইসলাম জাতীয় সুইমিং কমপ্লেক্স, রায়হান আল মুঘনী ভাইসহ অন্যান্যদের।’

যুগযুগান্তর পত্রিকা. নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Jugjugantor24.com  
Design & Developed BY ThemesBazar.Com