জরুরি নোটিশ:
যুগযুগান্তর পত্রিকার জন্য সারাদেশে জেলা ও উপজেলায় সংবাদ দাতা আবশ্যক।  মোবা: 01842268378 ইমেইল: nskibria2012@gmail.com
মইনুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ গ্রহণের শুনানি ২৯ নভেম্বর

মইনুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ গ্রহণের শুনানি ২৯ নভেম্বর

আদালত প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

নারী সাংবাদিককে নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে করা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় গ্রেপ্তার সাবেক তত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র গ্রহণের শুনানির জন্য ২৯ নভেম্বর তারিখ ধার্য করেছে ট্রাইব্যুনাল। গতকাল মঙ্গলবার সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালের বিচারক মোহাম্মাদ আস্ সামছ জগলুল হোসেন অভিযোগপত্র গ্রহণের তারিখ ঠিক করেন।

এর আগে মামলাটির অভিযোগপত্র ঢাকা সিএমএম আদালত থেকে সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালে বিচার শুরুর জন্য পাঠানো হয়।
ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর নজরুল ইসলাম শামীম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ২৯ নভেম্বর আসামিকে ট্রাইব্যুনালে হাজির করতে আদালত থেকে প্রোডাকশন ওয়ারেন্ট পাঠানো হবে।

মাসুদা ভাট্টিকে ‘চরিত্রহীন’ বলায় গত ২৪ অক্টোবর সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালে মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে মামলা করেন আওয়ামী লীগ উপ-কমিটির যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সদস্য সুমনা আক্তার লিলি। ওইদিন বিচারক মামলাটি এজাহার হিসেবে গ্রহণের জন্য গুলশান থানাকে নির্দেশ দেন।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, গত ১৬ অক্টোবর বেসরকারি একাত্তর টেলিভিশনের লাইভ টেলিকনফারেন্সে এক প্রশ্নের জবাবে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে ‘চরিত্রহীন’ বলেন ব্যারিস্টার মইনুল। এর দুই দিন পর ১৮ অক্টোবর ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে মইনুল বলেন, শুধু তিনি চরিত্রহীন বলছেন না, আরও অনেক মানুষ তাকে চরিত্রহীন বলছেন। সর্বশেষ তিনি ‘দি নিউনেশন’ পত্রিকার সাবেক সাংবাদিক রব মজুমদারের সঙ্গে টেলিফোনে ওই সাংবাদিক সম্পর্কে একাধিকবার বাজে মেয়ে বলে সম্বোধন করেছেন। তার বক্তব্য দেশের সমস্ত ইলেকট্রনিক্স, অনলাইন মিডিয়া ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়। তার এমন বক্তব্যে শুধু সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির মানহানি ঘটে নাই, একজন নারী হিসেবে বাদিনীরও মানহানি ঘটেছে, যা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫ (২) ও ২৯ (২) ধারার অপরাধ।

মামলাটিতে ১৬ দিন তদন্ত শেষে মামলাটির তদন্ত কর্মকর্তা গুলশান থানার পুলিশ ইনপেক্টর আমিনুল ইসলাম ৮ নভেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।
উল্লেখ, সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টিকে ‘চরিত্রহীন’ বলা নিয়ে মানহানির অভিযোগে এর আগে মইনুলের বিরুদ্ধে আরও ২২টির মামলা হয়েছে। এর মধ্যে রংপুরে হওয়া একটি মামলায় মইনুল হোসেনকে ২২ অক্টোবর গ্রেপ্তার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

যুগযুগান্তর পত্রিকা. নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Jugjugantor24.com  
Design & Developed BY ThemesBazar.Com