জরুরি নোটিশ:
যুগযুগান্তর পত্রিকার জন্য সারাদেশে জেলা ও উপজেলায় সংবাদ দাতা আবশ্যক।  মোবা: 01842268378 ইমেইল: nskibria2012@gmail.com
বাবে রহমতের সাপ্তাহিক মাহফিলে সূফী সম্রাট

বাবে রহমতের সাপ্তাহিক মাহফিলে সূফী সম্রাট

নিজস্ব প্রতিবেদক :
“আমরা আত্মা শুদ্ধি দিল জিন্দা নামাজে হুজুরীর শিক্ষা দিয়ে দেই যাতে মানুষ মুমিন হতে পারে”

মহান সংস্কারক মোহাম্মদী ইসলামের পুনর্জীবনদানকারী সূফী সম্রাট হযরত সৈয়দ মাহবুব-এ-খোদা দেওয়ানবাগী (মাঃ আঃ) হুজুর কেবলা বলেন, আমরা চেষ্টা করি একজন মানুষ আশেকে রাসূল হোক, তার ক্বালবে আল্লাহর জ্বিকির জারি হোক, তার নামাজে একাগ্রতা সৃষ্টি হোক, তার আত্মাশুদ্ধি হোক। আমরা এই চেষ্টাগুলো করি, মানুষ যেন মুমেন হতে পারে, ঈমানদার হতে পারে। এজন্য আমরা আমাদের দরবার শরীফে, খানকাহ্ শরীফে তালিমের ব্যবস্থা করেছি। তিনি গত ৬ই জুলাই শুক্রবার রাজধানী ঢাকার মতিঝিলের আরামবাগস্থ বাবে রহমত দেওয়ানবাগ শরীফে অনুষ্ঠিত সাপ্তাহিক আশেকে রাসূল (সঃ) মাহফিলে সমবেত হাজার হাজার আশেকে রাসূলের উদ্দেশ্যে বাণী মোবারক দিচ্ছিলেন।

সূফী সম্রাট হুজুর কেবলা বলেন, আল্লাহকে পেতে হলে তাঁকে পাওয়ার বিদ্যাটা শিখতে হবে। ‘আল্লাহকে পাওয়া যায় না’-এটা ঠিক নয়, এটা ভুল কথা। দুনিয়াতে আল্লাহকে পাওয়া যায়। অসংখ্য মানুষ আল্লাহকে পেয়েছেন। এক লাখ চব্বিশ হাজার নবী-রাসূল কি আল্লাহকে পাননি? পেয়েছেন। তাঁরা কি মৃত্যুর পরে পেয়েছেন? না, তাঁরা দুনিয়াতে থেকেই পেয়েছেন। দুনিয়াতেই পেয়েছেন।

তিনি বলেন, হযরত মুসা (আঃ) আল্লাহকে দেখেছিলেন। তিনি যখন পাহাড়ে রাস্তা হারিয়ে ফেলেছিলেন, তখন একটা গাছের উপর উজ্জ্বল আলো দেখেছিলেন। হযরত মুসা (আঃ) ভেবেছিলেন, এটা আগুন। কাছে যাওয়ার পরে ঐ আলোর ভিতর থেকে আওয়াজ আসে, “হে মুসা! আমি আগুন নহি, আমি তোমার প্রভূ। তোমার পায়ের জুতা খুলে ফেল।” তখন হযরত মুসা (আঃ) জুতা খুলে ফেলেন। আল্লাহ্ ও মুসা (আঃ)-এর সামনা-সামনি কথাবার্তা হলো। আল্লাহ্ তখন তাঁকে নুবয়ত দান করলেন এবং বললেন, হে মুসা! তোমার হাতে এটা কি? তিনি জবাব দিলেন, এটা আমার লাঠি। এটা দিয়ে তুমি কি কর? মুসা (আঃ) বললেন, আমি এটা দিয়ে গাছের পাতা ছিড়ে ছাগলকে খাওয়াই; এটা দিয়ে অন্যান্য কাজ করি। তখন আল্লাহ্ বললেন, এটা তোমার হাত থেকে ফেলে দাও। ঐ লাঠিটা হাত থেকে মাটিতে ফেলে দেয়ার সাথে সাথে বিরাট অজগর সাপ হয়ে লাফালাফি শুরু করে। এসময় মুসা (আঃ) ভয় পেয়ে দিলেন দৌড়। তখন আল্লাহ্ বললেন, হে মুসা (আঃ) আমার সামনে আমার কোন বান্দা আমাকে ফেলে দৌড়ে পালায় না। তুমি পালাচ্ছ কেন? এটাতো তোমার কোন ক্ষতি করবে না। তুমি থামো- তুমি পালিয়ে যেয়ো না। এরপরে মুসা (আঃ)-কে কাছে ডেকে আল্লাহ্ অনেক কথা বললেন। আল্লাহ্ মুসা (আঃ)-কে এই লাঠিটা মোজেজা হিসেবে দিলেন। মুসা (আঃ) যে কোন প্রয়োজনে যেখানে খুশি ঐ লাঠিটা ব্যবহার করতেন।

সূফী সম্রাট হুজুর কেবলা বলেন, ধর্মীয় জগৎটা একটা রহস্যময় জগৎ। পৃথিবীতে যত নবী এসেছেন, যত রাসূল এসেছেন, সবাইকে আল্লাহ্ মোজেজা দিয়েছিলেন। এই মোজেজা দিয়ে আল্লাহ্ তাঁদের সাহায্য করেছেন। বেলায়েতের যুগে যাঁরা আল্লাহর অলী বন্ধু, তাঁদেরকে কারামত দেন। ঐ কারামত দিয়েই তাঁদের অনুসারীরা বিপদ থেকে উদ্ধার পায়, বিভিন্ন রকম সাহায্য পায়।

তিনি বলেন, আমরা আগে তরীকা করতাম- আর এখন আমরা করি মোহাম্মদী ইসলাম। মোহাম্মদী ইসলাম আর দীন ইসলামের মধ্যে পার্থক্য আছে। মোহাম্মদী ইসলাম হলো হযরত মোহাম্মদ (সঃ)-এর ইসলাম; আর মোহাম্মদী ইসলাম থেকে মোহাম্মদ (সঃ)-কে বাদ দিয়ে হয়েছে দ্বীন ইসলাম। উমাইয়া শাসকরা দ্বীন ইসলাম করেছে। এটাই এখন সারা বিশ্বে চলছে। বিশ-পঁচিশ বছর আগে আমরা দেখেছি- বায়তুল মোকাররম মসজিদের গেইটে একপার্শ্বে আল্লাহু, আরেক পার্শ্বে মুহাম্মদ লেখা ছিল। কিন্তু এখন আর সেটা নাই। সেখানে লেখা হয়েছে, আল্লাহু আকবার। প্রশ্ন জাগে- মোহাম্মদ (সঃ)-কে বাদ দিয়ে আল্লাহকে ডাকলে কি কোন লাভ আছে? কোন লাভ নেই। এভাবেই মুসলিম জাতির কাছ থেকে মোহাম্মদ (সঃ) বিদায় হয়েছেন। তাঁকে বিদায় করার কারনেই মুসলিম জাতি সারা বিশ্বে মার খাচ্ছে।

আশেকে রাসূলেরা! আপনারা মহব্বতের সাথে তরীকার কাজ করবেন, আর দরবার শরীফে ঘন ঘন আসবেন। আপনারা আল্লাহর সাহায্য চান, আল্লাহ্ই আপনাদেরকে সাহায্য করবেন।

সকাল ১০টায় অনুষ্ঠান শুরু হলে- প্রথমে আশেকে রাসূলদের মোহাম্মদী ইসলামের ওয়াজিফার তালিম দেওয়া হয়। দুপুর সাড়ে ১২টায় জু’মার নামাজের আজানের পর মোহাম্মদী ইসলামের মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অতঃপর বেলা দেড়টায় জু’মার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। এরপর সূফী সম্রাট হুজুর কেবলা মাহফিলে সমবেত হাজার হাজার আশেকে রাসূলদের উদ্দেশ্যে বাণী মোবারক প্রদান করে মাহফিলের আখেরী মুনাজাত পরিচালনা করেন। এরপর তিনি নবাগতদের সবক দেন। মাহফিল শেষে সবাই তাবারুক খেয়ে বিদায় নেন।

যুগযুগান্তর পত্রিকা. নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Jugjugantor24.com  
Design & Developed BY ThemesBazar.Com