জরুরি নোটিশ:
যুগযুগান্তর পত্রিকার জন্য সারাদেশে জেলা ও উপজেলায় সংবাদ দাতা আবশ্যক।  মোবা: 01842268378 ইমেইল: nskibria2012@gmail.com
গাজীপুরে যানজট নিরসনে মাঠে প্রশাসন

গাজীপুরে যানজট নিরসনে মাঠে প্রশাসন

গাজীপুর প্রতিনিধি

পবিত্র ঈদুল ফিতরে ঘরমুখো মানুষের যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে গাজীপুরের টঙ্গী থেকে জয়দেবপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত সড়ক যানজট মুক্ত রাখতে উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রশাসন। এই উদ্যোগের সহযোগিতায় রয়েছে সিটি করপোরেশন, মহানগর-জেলা পুলিশ।
ঢাকা-গাজীপুর মহাসড়কের প্রায় নয় কিলোমিটার সড়কে বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) প্রকল্পের কাজ চলমান থাকায় চার লেনের এ মহাসড়কটি বিভিন্ন স্থানে এক লেন বা দুই লেন হয়ে গেছে। আনারকলি রোডের সামনে গর্ত সৃষ্টি হলেও ইট দিয়ে সড়ক সচল করা হচ্ছে।

বিআরটি প্রকল্পের পরিচালক মো. সানাউল হক বলেন, ঈদের এক সপ্তাহ আগে থেকে বিআরটি প্রকল্পের কাজ বন্ধ করা হবে। এছাড়া সড়ক সচল রাখতে লোকবল নিয়োজিত থাকবে।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, ঈদ যাত্রায় ফিটনেসবিহীন যানবাহন সড়কে চলতে পারবে না। মহাসড়কে অযান্ত্রিক ও ধীরগতির যান চলাচল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। কোনো রিকশা, ভ্যানকে মহাসড়কে উঠতে দেয়া হচ্ছে না। সড়কের পাশে হকার ও অবৈধ দোকানপাট নেই। ঈদের তিন দিন আগে মহাসড়কের পাশে যানবাহন থেকে মালামাল লোড-আনলোড করতে পারবে না।

আশা করছি গাজীপুরের উপর দিয়ে সব ধরনের যানবাহন নির্বিঘ্নে চলাচল করতে পারবে। ঢাকা থেকে উত্তরাঞ্চলের দিকে ২৭টি রোডের যানবাহন গাজীপুর চৌরাস্তার উপর দিয়ে যাতায়ত করে থাকে। এর মধ্যে যানজট প্রবণ এলাকা হিসেবে পরিচিত কোনাবাড়ি ও চন্দ্রা এলাকায় এবারের ঈদে যানজট থাকছে না। এ দুটি স্থানে দুটি ফ্লাইওভার ও দুটি ব্রিজ যানবাহন চলাচলের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে। এতে কোনাবাড়ির যানজটের দুই ঘণ্টার পথ এখন মাত্র তিন মিনিটে পার হওয়া যাচ্ছে ।

গাজীপুরের ডিসি ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ুন কবীর বলেন, ঈদের আগে মহাসড়ককে নির্বিঘ্নে গাড়ির চলাচলের ব্যবস্থা করা হবে। ঈদের কয়েকদিন আগে থেকেই মহাসড়কে অবৈধ দোকান-পাট, হাট বাজার উচ্ছদ করা হচ্ছে। মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে মহাসড়কে ড্রাইভিং লাইসেন্সবিহীন চালক ও আনফিট গাড়ি মুক্ত করা হবে। সাতদিন আগে থেকে মহাসড়কে চলমান বিআরটি প্রকল্পের কাজ বন্ধ করা হয়েছে। সড়কে যানজট সৃষ্টিকারী ওই প্রকল্পের মালপত্র সরিয়ে নেয়া হচ্ছে।

ডিসি বলেন, সড়কের উপর পানি না তড়িৎ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। মহাসড়কের পাশে নির্মাণাধীন ড্রেনে যাতে পথচারী ও গাড়ি না পড়ে সে জন্য লাল ফিতা টানিয়ে দেয়া হবে। পুলিশ ও কমিউনিটি পুলিশের সংখ্যা বাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। মহাসড়কগুলো সার্বক্ষণিক নজরদারিতে রাখা হবে। নির্ধারিত স্থান ছাড়া কোনো গাড়ি দাঁড়াতে দেয়া হবে না। ঈদে ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্য করতে দেয়া হবে না। কেউ অতিরিক্ত ভাড়া নিলে তাৎক্ষণিক ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হবে।

যুগযুগান্তর পত্রিকা. নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved © 2018 Jugjugantor24.com  
Design & Developed BY ThemesBazar.Com